ব্লগিং বিষয় বিস্তারিত আলোচনা

মুক্ত ভাবে মনের ভাব প্রকাশের জন্য একটি উনমুক্ত প্লার্টফম। ইন্টারনেটে যে কেউ চাইলেই ব্লগিং শুরু করতে পারে। ব্লগিং শুরু করার জন্য যদিও তেমন কোন অভিজ্ঞতার দরকার হয় না।

কিন্তু আপনি যদি আয় করার উদ্দেশ্য নিয়ে ব্লগিং শুরু করেন তাহলে অনেক কিছুই আপনাকে জানতে হবে।

ব্লগিং ইতিহাস

ব্লগ একটি ইংরেজি শব্দ যার আভিধানিক মানে ভার্চুয়াল ডায়েরী অথবা ইন্টারনেটে ব্যক্তিগত দিনলিপি।

Weblog সংক্ষিত রূপ ব্লগ। ১৯৯৭ সালে জোম বার্গার সর্বপ্রথম ওয়েবব্লগ শব্দটি ব্যবহার করেন। পরবর্তীতে ১৯৯৯ সালে পিটার মেরহোলজ তার নিজস্ব ব্লগ পিটার ডট কমে ওয়েবব্লগ শব্দটি বিভক্ত করে ব্লগ শব্দটি ব্যবহার করেন। তারপর থেকে ব্লগ শব্দটির ব্যবহার শুরু হয়।

পৃথিবীর প্রথম ব্লগ সাইটের নাম হল Links.net 1994  justin Hall সর্বপ্রথম তার ব্লগে একটি লেখা পাবলিশ করেন।

নিচের ছবির মধ্যে দেখা ওয়েবসাইটি দিয়ে ব্লগ পাবলিশ শুরু করা হয়।

ব্লগ থেকে আয় করুন কাস্টমার রেফার করে

ব্লগিং ইতিহাস বিষয় বিস্তারিত জানার জন্য ঘুরে আসতে পারেন themeisle

ব্লগিং নিয়ে কমন কিছু প্রশ্ন উত্তর

ব্লগিং

ব্লগিং কি

ব্লগিং কি? বিষয়টা নিয়ে এই লেখার শুরুতে আলোচনা করেছি। তবুও আর একবার বিষয়টা ক্লিয়ার হওয়ার দরকার। ব্লগিং হল একটি ভাব প্রকাশের মাধ্যম। পূর্বে মানুষ মনের ভাব প্রকাশের জন্য খাতা কলম ব্যবহার করত।

বর্তমানে মানুষ মনের ভাব প্রকাশের জন্য ব্লগ পোষ্ট করাকে বেঁছে নিয়েছে। বিষয়টা কিন্তু একই শুধু একটু পার্থক্য পরিলক্ষিত তা হল এখন আপনার প্রকাশ করা ভাব খুব সহজে অন্যের কাছে পৌঁছানো যাচ্ছে।

কিভাবে ব্লগ তৈরি করব

ব্লগিং করতে কত টাকা লাগে?

ব্লগিং করতে টাকা লাগে না, শুধু সময় লাগে। কিন্তু একটি ব্লগ সাইট তৈরি এবং মেইনটেইন করার জন্য টাকা লাগে।

ব্লগ সাইট তৈরি করার প্রথম কাজ ডোমেইন ক্রয় করা। আপনাকে যে কোন একটি নামে ডোমেইন ক্রয় করতে হবে। একটি ডোমেইন এর মূল্য ৮৫০ হতে ১০০০ হাজার টাকা পর্যন্ত হয়।

ডোমেইন ক্রয় করা শেষে আপনাকে হোস্টিং ক্রয় করতে হবে। ১ জিবি একটি হোস্টিং ক্রয় করার জন্য খরচ হবে ১০০০ হাজার টাকা।

মোট খরচ হলঃ ৮৫০+১০০০ = ১৮৫০ টাকা।

আপনি ১৮৫০ টাকা দিয়ে যে ডোমেই হোস্টিং ক্রয় করলেন তা কিন্তু এককালিন নয়। এর জন্য প্রতি বছর আপনাকে ১৮৫০ টাকা পেমেন্ট করতে হবে।

ব্লগ লেখার অসাধারন নিয়ম

ব্লগ সাইট তৈরি খরচ

আপনি ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে একটি ব্লগ সাইট খুব সহজে করতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে আপনাকে ইউটিউবের বিভিন্ন ভিডিও টিউটোরিয়াল সহযোগিতা করবে।

কিন্তু যদি মনে করেন অন্য কাউকে দিয়ে ব্লগ সাইটি তৈরি করে নিবেন তবে ৫০০০ হতে ৮০০০ টাকা পর্যন্ত খরচ হবে। অবশ্য এই খরচ টা কম বেশি হতে পারে। এটা নির্ভর করবে আপনি কোন ধরনের ব্লগ সাইট তৈরি করবেন তার উপর।

বি.দ্রঃ আমরা ব্লগ সাইট তৈরি করার কাজ করি। আপনি চাইলে আমাদের সাথে যোগাযোগ করে ব্লগ সাইট তৈরি করে নিতে পারেন।

কোন ধরনের কন্টেন্ট লিখে বেশি আয় করা যায়

আমি কি বিষয় নিয়ে ব্লগিং শুরু করব?

আপনি টাকা আয় করার জন্য ব্লগিং করতে চাইলে অবশ্যই একটি টপিক নির্বাচন করতে হবে। এমন বিষয় নির্বাচন করা যাবে না, যার মূল্য সাধারন মানুষের কাছে নেই।

টাকা আয় করার উদ্দেশ্য না থাকলে যে কোন বিষয় নিয়ে ব্লগ তৈরি করতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে কোন ধরা বাঁধা নিয়ম নেই।

আমি কিছু টপিক দিচ্ছি

  • সফটওয়্যার রিভিউ রিলেটেড ওয়েবসাইট
  • শিক্ষা বিষয় ওয়েবসাইট
  • স্বাস্থ্য বিষয় ওয়েবসাইট
  • সাধারন জ্ঞান বিষয়
  • নিউজ রিলেটেড
  • ফ্যাশান
  • বিউটি সাজেশন
  • প্রডাক্ট রিভিউ

এমন একটি ব্লগ সাইট তৈরি করতে হবে যার মাধ্যমে মানুষের সমস্যার সমাধান হয়। অথবা সাজেশন রিলেটেড ব্লগ সাইট তৈরি করতে হবে।

ফ্রি প্রফেশনাল ব্লগিং কোর্স

ব্লগিং করার জন্য আমাকে কি শিখতে হবে?

ব্লগিং করে টাকা আয় করার চিন্তা থাকলে যে বিষয় গুলো আপনাকে জানতে হবে।

কন্টেন্ট রাইটিংঃ একটি ব্লগের মাদার এবং ফাদার বিষয় হল কন্টেন্ট। আপনার ওয়েবসাইটে কি লেখা আছে গুগলের কাছে তা মুখ্য বিষয়। ওয়েবসাইটের কন্টেন্ট যত বেশি ভালো হবে তত আপনার ওয়েবসাইট র‌্যাংক করবে।

এসইওঃ ব্লগিং করে আয় করতে চাইলে এসইও বিষয় ভালো ধারনা থাকাটা জরুরি। শুধু ব্লগ লিখতে জানলেই হবে না। তার সাথে আপনাকে জানতে হবে কি ভাবে আপনার ওয়েবসাইটকে র‌্যাংক করতে হবে। আপনি এসইও বিষয় একটি মিনি কোর্স করে নিতে পারেন।

গ্রাফিক্সঃ অনেক ভালো গ্রাফিক্স জানতে হবে তা কিন্তু নয়। কাজ করার মত গ্রাফিক্স জানলেই হবে। কেন গ্রাফিক্স লাগবে? একটি টেবিল ডিজাইন করতে হবে আরটিকেলের জন্য। সে ক্ষেত্রে গ্রাফিক্স জানা থাকলে ডিজাইন করা সহজ হবে।

এইচটিএমএলঃ HTML বিষয় প্রাথমিক জ্ঞান থাকাটা দরকার। কারন বিভিন্ন কন্টেন্ট লেখার সময় HTML দরকার হবে।

ওয়ার্ডপ্রেসঃ ব্লগিং করার জন্য ওয়ার্ডপ্রেস থিম কাস্টমাইজেশনের বেসিক জ্ঞান থাকাটা দরকার। কারন আপনি যখন ব্লগ লেখা শুরু করবেন তখন ওয়েবসাইটের অনেক বিষয় কাস্টমাইজেশ করতে হবে।

ব্লগিং করে আয় করার সেরা উপায় গুলো

ফ্রি ব্লগিং কী ভাবে করা যায়?

আপনি চাইলে ওয়ার্ডপ্রেস, ব্লগার, ওয়েবলি ইত্যাদি সিএমএস চ্যানেলের মাধ্যমে ফ্রি ব্লগ সাইট খুলতে পারবেন। ফ্রি ব্লগ সাইটের কোন ধরনে টাকা দিতে হয় না।

আমি দুইটি লিংক উদাহরন হিসাবে দিচ্ছি। দুইটি লিংকের মধ্যে একটি ফ্রি অন্যটি পেইড।

www.freeblogging.com

www.blogger.freeblogging.com

দুইটি লিংকের মাঝে একটিতে ব্লগার লেখা অন্যটাতে নেই, এর মানে যার মধ্যে ব্লগার লেখা নেই সেই লিংকটি পেইড ব্লগিং অন্য লিংকে যেখানে ব্লগার লেখা আছে, তা ফ্রি ব্লগিং।

ফ্রি এবং পেইড ব্লগিং করার মধ্যে পার্থক্য

ব্লগিং করে কত টাকা আয় করা যায়?

এই প্রশ্নের সঠিক উত্তর কেউ দিতে পারবে না। তবে এটা বলা সম্ভব একটি ব্লগ সাইট শুরু করার ১ হতে ১.৫ বছরের মধ্যে ২০,০০০ হতে ৩০,০০০ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন রেভিনিউ জেনারেট করে।

তবে আমি ব্যক্তিগত ভাবে মনে করি ব্লগ প্রতিষ্টিত করার পর ব্লগের আয় নিয়ে চিন্তা করা উচিত।

ব্লগিং করে আয় করার বিভিন্ন মাধ্যম

ওয়েবসাইট ডিজাইন এবং ডেভলোপমেন্ট সাভির্স নেওয়ার জন্য নিচের দেওয়া প্রফাইলের সাথে যোগাযোগ করুন।

WordPress Website Design and Development Service

ডান থেকে বামে টানুন আরও পোষ্ট দেখার জন্য