ফ্রি ব্লগ সাইট বানিয়ে কিভাবে আয় করা যায়?

আজকের আলোচনার মাধ্যমে সম্পূর্ণ ভাবে বলার চেষ্টা করব কিভাবে ফ্রি ব্লগ সাইট বানিয়ে অনলাইন থেকে আয় করবেন। আপনি আজ যে বিষয় গুলো জানতে পারবেন আশা করি অন্য কোন ব্লগ সাইটে কেউ এই ভাবে বিস্তারিত ভাবে বলে নাই।

ফ্রি ব্লগ সাইট বানানো যাবে কিভাবে? ফ্রি ব্লগিং এবং পেইড ব্লগিং কোনটি ভালো। ব্লগ সাইট থেকে আয় করার কিছু উপযুক্ত মাধ্যম।

ফ্রি ব্লগ সাইট বানানো যায় এমন দুইটি মাধ্যম নিয়ে আজকে কথা বলব। এক Blogger অন্যটি ওয়ার্ডপ্রেস।

ব্লগার ওয়েবসাইটে কিভাবে ব্লগ তৈরি করবেন

জিমেইল একাউন্টঃ ব্লগার ওয়েবাসাইট তৈরি করার জন্য সর্ব প্রথম যে বিষয় টি আপনাকে ক্রিয়েট করতে হবে তাহল জিমেইল একাউন্ট। জিমেইজ একাউন্ট ছাড়া কোন ভাবেই ব্লগ সাইট তৈরি করতে পারবেন না, বিশেষ করে ব্লগার ডট কম।

Gmail Account ক্রিয়েট করার জন্য প্রথমে account.google.com ক্লিক করুন। ক্লিক করার পর নিচের ছবিটার মত একটি ছবি দেখতে পাবেন। এখানে প্রয়োজনী তথ্য প্রদান করুন।

google gmail account

Username দেওয়ার পর একটু অপেক্ষা করুন। দেখুন আপনি যে ইউজার নামটি ব্যবহার করতে চাচ্ছেন তা আগে কেউ ব্যবহার করেছে কি না। যদি কেউ ব্যবহার করে থাকে তাহলে সেখানে একটি লেখা আসবে Username unavailable। Unavailable আসলে আপনাকে অন্য ইউজার নাম চেষ্টা করতে হবে । অথবা আপনি একটি কাজ করতে পারেন Username সাথে কিছু ডিজিট যোগ করে দিলেন। যেমন Rahim2095@gmail.com

পাসওয়ার্ডঃ জিমেইল একাউন্ট তৈরি করার জন্য অবশ্যই ৮টি অক্ষর আপনাকে ব্যবহার করতে হবে। এবং এই ৮টি অক্ষরের মধে নাম্বর এবং সংকেত থাকতে হবে। সংকেত বলতে হেজ, পারসেন্ট, গেটারদেন, স্টার ইত্যাদি। পাসওয়ার্ড দেওয়া শেষ হয়ে গেলে নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন।

Phone Number Verify: আপনার ফোন নাম্বর টি দিন। এবং নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন। ৫ থেকে ১০ সেকেন্ডের মধ্যে একটি ভেরিফাই কোড পাবেন। এবার কোডটি নিদিষ্ট স্থানে বসিয়ে আপনার গুগল একাউন্ট তৈরি সম্পূর্ণ করুন।

জিমেইল একাউন্ট তৈরি করা শেষ হয়ে গেলে Blogger.com ক্লিক করে প্রবেশ করুন। এবার নিচের ছবির মত একটি ওয়েবসাইট আসবে। এবার Create Your Blog অপশনে ক্লিক করুন।

ব্লগারে কি ভাবে ওয়েবসাইট তৈরি করবেন সেই বিষয় ভিডিও সহ দেখার জন্য নিচের দেওয়া লিংকে প্রবেশ করুন।

প্রফেশনাল ব্লগ সাইট তৈরি করার সম্পূর্ণ কোর্স

উপরের লিংকে প্রবেশ করার পরে কত গুলো ভিডিও পাবেন। যার মাধ্যমে আপনি সম্পূর্ণ ব্লগ সাইট তৈরি করতে পারবেন।

ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগ সাইট কিভাবে তৈরি করব

প্রথমে WordPress.com ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন। WordPress প্রবেশ করার পর নিচের ছবিটি দেখতে পাবেন।

Create wordpress website

এবার Start Your Website বাটনে ক্লিক করলে নিচের ছবির মত স্থানটি আসবে। নিচের ছবিটির দিকে লক্ষ রাখুন…

Wordpress account create

আপনার ইমেইল এ্যাড্রেস, ইউজার নেম, পাসওয়ার্ড দিয়ে ক্রিয়েট ইউয়ার ‍একাউন্টে ক্লিক করুন।

wordpress website domain name

আপনার ওয়েবসাইটের নাম সার্চ করুন। যেমন আমার ব্লগ সাইটের নাম mybdblog তেমনি আপনাকে একটি নাম লিখতে হবে এখানে। অবশ্য একটি বিষয় আছে আপনি যে নামটি সার্চ করছেন, আগে থেকে রেজিঃ করা থাকলে দ্বিতীয় বার নেওয়া যাবে না। পছন্দের নাম পাওয়া টা সমস্যার তবু ট্রেই করতে পারেন।

অন্য কোন প্রতিষ্টান থেকে রেজিঃ করা ডোমেইন থাকলে আপনি এখানে ব্যবহার করতে পারবেন।

ফ্রি ডোমেইনের সমস্যা হল, আপনার ডোমেইনের সাথে এক্সট্রা ডট woordpress কথাটা যুক্ত থাকবে। একটা উদাহরন দেওয়া যাক, ধরলাম আমার ক্রয়কৃত একটি ডোমেইনের নাম ratul.com কিন্তু এই ডোমেইন টা ফ্রিতে ওয়ার্ডপ্রেসে ব্যবহার করলে নাম হত ratul.wordpress.com শুধু এতটুকু।

আর কিছু সমস্যা আছে ফ্রি এবং পেইড ব্লগ সাইটের বিষয়ে। ফ্রি এবং পেইড ব্লগিং বিষয় বিস্তারিত ভাবে জানতে চাইলে নিচের লেখাটি পড়তে পারেন। আশা করছি সম্পূর্ণ বিষয়টি বুঝতে পারবেন।

ফ্রি এবং পেইড ব্লগিং করার পার্থক্য

আপনি যখন নাম সার্চ করবেন তখন নিচের ছবিটির মত কিছু একটা দেখতে পাবেন।

Blog reg

আমি সার্চ করেছি shojibroyblog। দেখুন আমাকে অনেক গুলো নাম সাজেস্ট করা হচ্ছে। কিন্তু আমি ফ্রি ব্লগ করতে চাইলে শুধু একটা নামেই সিলেক্ট করতে পারব। আর সেটা হল shojibroyblog.wordpress.com, অন্য গুলো সিলেক্ট করলে আপনাকে পেমেন্ট করতে হবে, যদিও প্রথম বছর ফ্রি। এবার সিলেক্ট করুন আপনার ফ্রি ব্লগে।

click here your free wordpress website

ফ্রি ব্লগ অপশনে সিলেক্ট করার পর উপরের ছবিটি দেখতে পারবেন। এবার ক্লিক করুন Start with a free site অপশনে। এবং এই ক্লিকের মধ্যে দিয়ে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগ সাইট তৈরি করা শেষ হয়ে যাবে।

Final WordPress website

এবার আপনাকে আপনার ব্লগ সাইটি কাস্টমাইজেশন করতে হবে। কাস্টমাইজেশন করা বলতে ব্লগ সাইটে লোগো, ব্যানার, হোম পেজ ডিজাইন ইত্যাদি বিষয় গুলোকে বোঝানো হচ্ছে।

How to write a blog post

Write Post ক্লিক করলে উপরের যে ইমেজটা দেখতে পাবেন। এবার আপনাকে প্রথমে টাইটেল, বর্ণনা লিখতে হবে।

এবং কিছু সিটিং আছে সেগুলো ঠিক করতে হবে যেমন Permalink, Categories, Tags, Featured image, Excerpt, Discussion ইত্যাদি। এর মধ্যে যে বিষয় গুলো দেওয়া প্রয়োজন Permalink, Categories, Featured image। অবশ্য এই গুলো না দিয়ে আপনি আপনার পোষ্ট পাবলিশ করতে পারবেন।

ব্লগিং করে কত টাকা আয় করা সম্ভব

ব্লগের আয়ের উৎস

গুগল এডঃ সাধারনত প্রতিটি ব্লগার প্রথম লক্ষ স্থির রাখে Google Adsense । তারপর ধীরে ধীরে অন্য বিষয় গুলো দিকে খেয়াল রাখতে হবে।

আপনি যখন কোন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেন তখন দেখবেন বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞাপন দেখা যায়। নিচের ছবিটা দেখুন

Google ads

আমি লাল ব্লক দিয়ে একটা বিষয় সিলেক্ট করেছি। যে সকল ওয়েবসাইটে এমন টা দেখবেন সেটাই আসলে গুগল বিজ্ঞাপন। আপনার ওয়েবসাইটে গুগল ফ্রি বিজ্ঞাপন দেখাবে না এর জন্য আপনাকে পেমেন্ট করবে।

তবে আপনি আজকে ব্লগিং শুরু করলে কালকে থেকে গুগল বিজ্ঞাপনের অনুমতি পাবেন না। অনুমতি পাওয়ার জন্য গুগল বিজ্ঞাপন প্রচারের প্রাইভেসি পলিসি পূরণ করতে হবে।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংঃ আমি আমার ব্লগ সাইটে ডোমেইন এবং হোস্টিং নিয়ে একটি পোষ্ট লিখলাম। এবং আমার লেখা পোষ্টি পড়ার জন্য হাজার হাজার মানুষ আসে। এখান পোষ্টের মাধ্যমে কিছু ডোমেইন এবং হোস্টিং প্রভাইড কারি কোম্পানি রেফার করলাম।

আমি কোম্পানি গুলোকে রেফার করছি কারন কমিশন পাওয়ার জন্য। আপনি আমার প্রভাইড করা কোম্পানি গুলোর মধ্যে থেকে ডোমেইন হোস্টিং ক্রয় করলে আমি কিছু কমিশন পাবো এবং এটাই অ্যাফিলিয়ে মাকের্টিং।

আপনি বিভিন্ন ধরনের পণ্য বা সার্ভিস রেফার করার মাধ্যমে ব্লগ সাইট থেকে আয় করতে পারবেন।

ব্লগিং কন্টেন্ট লেখার কৌশল বা উপায়

ব্যাকলিং বিক্রয়ঃ আপনার একটি নতুন ওয়েবসাইট আছে। এখন আপনি চাচ্ছেন আমি আমার ওয়েবসাইটে আপনার ওয়েবসাইটের লিংক শেয়ার করি। কিন্তু আপনার ওয়েবসাইটের লিংক শেয়ার করার জন্য আমাকে পে করতে হবে।

কোর্স বিক্রয়ঃ আপনি খুব সুন্দর ব্লগিং করতে পারেন। এবং এটা জানেন কিভাবে ব্লগিং করতে হয়। এই বিষয়কে কভার করে একটি কোর্স তৈরি করলেন, তারপর আপনার ব্লগে তার বিজ্ঞপ্তি দিলেন।

আপনার ব্লগে প্রতিদিন হাজার হাজার ভিজিটর আসে তার মধ্যে থেকে অনেক জন আপনার কোর্স ক্রয় করবে এবং আপনি আয় করতে পারবেন।

লোকাল বিজ্ঞাপনঃ আমি ঢাকায় থাকি এবং আমার একটি ব্লগ সাইট আছে। এখন একজন আবাসিক হোটেল মালিক চায় আমার ব্লগে বিজ্ঞাপন দিতে।

বিজনেজ প্রমোটঃ আপনি নতুন ই-কমার্স ব্যবসা শুরু করলেন। যেহেতু আপনার ই-কমার্স প্রতিষ্টিনটি নতুন সুতরাং কাস্টমার পাওয়ার সম্ভবনা খুবেই কম। আপনি আপনার ব্লগে সেই ই-কমার্স প্রতিষ্টানটির প্রচারনা করতে পারেন।

ব্যক্তিগত সার্ভিসঃ যেমন আমি অনেক দিন থেকে ব্লগ রাইটিং করার কাজটি করে আসতেছি। আপনি একটি ব্লগ সাইট করতে চাচ্ছেন এবং ব্লগ রাইটার খুঁজছেন। সুতরাং আপনি আমাকে হ্যায়ার করতে পারেন। আমি আপনার ওয়েবসাইটে কন্টেন্ট লিখে দেওয়ার কাজটি করে দিব।

আরও ব্লগিং আয় বিষয়ে বিস্তারিত

আমাদের ব্লগিং সার্ভিস

✅ ব্লগ সাইট এবং ই-কমার্স ওয়েবসাইট ডিজাইন ( প্রিমিয়াম থিম)

✅ ব্লগ কন্টেন্ট রাইটিং ( ইউনিক এবং এসইও ফ্রেন্ডলি কন্টেন্ট)

✅ এসইও এবং ডিজিটাল মার্কেটিং সার্ভিস

Contact Us

প্রফেশনাল ব্লগিং শুরু করতে কত টাকা লাগে

ডান থেকে বামে টানুন আরও পোষ্ট দেখার জন্য