ডিজিটাল মার্কেটিং ক্যারিয়ার

ডিজিটাল মার্কেটিং বর্তমান সময়ের সব থেকে দ্রুত বৃদ্ধি পাওয়া প্লাটফর্ম। প্রতিনিয়ত চাকরি বাজারে বিজ্ঞাপন এবং মার্কেটিং সেক্টরে এর চাহিকদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। সুতরাং এই লেখার মাধ্যমে আলোচনা করার চেষ্টা করবে কিভাবে নিজের ডিজিটাল মার্কেটিং ক্যারিয়ার গ্রো করবেন।

আপনি চাইলে চাকরি ব্যতিত নিজে ওয়েবসাইট তৈরি করার মাধ্যমে ডিজিটাল মার্কেটিং পেশায় ক্যারিয়ার তৈরি করতে পারেন।

সঠিক গাইডলাইন মেনে চললে Digital Marketer হয়ে সফল ক্যারিয়ার তৈরি করা সম্ভব।

আজকে নিদিষ্ট কিছু টপিক নিয়ে কথা বলা হবে। আশা করছি এতে করে আপনার ডিজিটাল মাকের্টিং ক্যারিয়ার শুরু করতে সহযোগিতা করবে।

ওয়েবসাইট অথবা ব্লগ তৈরি করুন

ডিজিটাল মাকের্টিং প্রাকটিস করার জন্য নিজের ব্লগ সাইট আপনাকে অনেক সহযোগিতা করবে। ধরুন আপনি কন্টেন্ট মাকের্টিং শিখবেন এর জন্য নিজের ওয়েবসাইট থাকলে শেখাটা সহজ হবে।

কিভাবে কন্টেন্ট মাকের্টিং করতে হয় তার জন্য সকল বিষয় ধিরে ধিরে শিখে নিজের ওয়েবসাইটে প্রয়োগ করতে পারবেন। এর ফলে আপনার যেমন কন্টেন্ট মাকের্টিং শেখা হবে এবং যা পরর্বতীতে আপনার জন্য আয়ের একটি উৎস তৈরি করবে।

শুধু কন্টেন্ট মাকের্টিং কেন অন্য যে কোন কাজ ডিজিটাল মাকের্টিং কাজ শেখার জন্য ব্লগ সাইট তৈরি করাটা জরুরি।

আপনি যে কোন ডিজিটাল মার্কেটিং বিষয় প্রাকটিস করার জন্য ব্লগ সাইট সহযোগিতা করবে। কিভাবে মার্কেটিং কৌশল তৈরি করবেন তার প্রাকটিক্যাল পরীক্ষা করতে পারবেন।

আপনি একটি নিদিষ্ট টপিক নির্বাচন করে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট তৈরি করে ডিজিটাল মার্কেটিং শুরু করতে পারেন। কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট তৈরি করবেন তার উপর কয়েক হাজার টিউটোরিয়াল পাবেন ইউটুবে।

সুতরাং বেশি চিন্তা করার দরকার নেই, কাজ শুরু করে দিতে পারেন। এই ওয়েবসাইট দিয়ে একটা সময় আয় করতে পারবেন। সব থেকে ভালো হয় আপনি আপনার নিজের নামে ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারলে।

একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল, আপনার ওয়েবসাইট প্রতিষ্টিত করার জন্য কিছু অর্থ খরচ করতে হবে। যখন আপনার সাইট সেটাপ করা হয়ে যাবে তখন শুধু ডিজিটাল মার্কেটিং বিষয় কে কেন্দ্র করে সামনে এগিয়ে যাবেন।

জনপ্রিয় অনলাইন মার্কেটিং কৌশল

অনলাইন বিজ্ঞাপনঃ ওয়েবসাইট তৈরি করার পর সাথে সাথে ভিজিটর নিয়ে আসার জন্য অনলাইন বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়। তবে আমি বলব যতক্ষন পর্যন্ত আপনি অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারবেন না ততক্ষন পর্যন্ত অনলাইন বিজ্ঞাপন প্রচার করার দরকার নেই।

কারন সঠিক ভাবে বিজ্ঞাপন দিতে না পারলে আপনার শুধু অর্থ খরচ হবে।

সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিংঃ এটা অনেক বেশি ভালো কাজ করবে যদি আপনার অনেক গুলো ফলোওয়ার থাকে। কিন্তু এটা যদি আপনার শুরু হয় তবে আমি বলব বাদ দিতে।

এসইওঃ ওয়েবসাইটের এসইও করার মাধ্যমে আপনি আপনার ওয়েবসাইটে ফ্রি ট্রাফিক পাবেন। এবং ওয়েবসাইট গুলো বেশির ভাগ ট্রাফিক আসে গুগল বা অন্য কোন সার্চ ইঞ্জিন থেকে। প্রতিনিয়ত নতুন নতুন ভিজিটর পাবেন। কিন্তু এর সমস্যা হল এটা খুব ধিরে কাজ করে অনলাইন বিজ্ঞাপন এবং সোস্যাশ মিডিয়া মার্কেটিং থেকে।

কিন্তু আপনি যদি দীর্ঘ সময় ধরে অনলাইন ব্যবসা করতে চান তাহলে আমি বলব এসইও কাজ শুরু করতে। যদিও অনেক গুলো মার্কেটিং সিস্টেম আছে শেখার জন্য।

  • প্রথমে এসইও বিষয় নিয়ে শিক্ষা গ্রহন করুন। এই বিষয়ে ইউটুবে এবং ব্লগে প্রচুর টিউটোরিয়াল পাবেন এসইও শেখার জন্য। প্রাথমিক ধারনা গুলো সহযোগিতা করবে মার্কেটিং মেথড সম্পর্কে।
  • ধরুন আপনি কিওয়ার্ড রিসার্স, অনপেজ এসইও, লিংক বিল্ডিং এবং টেকনিক্যাল এসইও নিয়ে শেখা শুরু করলে তাহল প্রতিটি বিষয় পরিপূর্ণ ভাবে জানতে হবে।
  • যে বিষয় শিখতে চান সেই বিষয় নিয়ে পরিপূর্ণ চিন্তা ভাবনা করুন। এবং বিষয়টা নিয়ে ভাবুন কিভাবে প্রতিটি ধাপ শিখবেন।

এসইও শুরু করার জন্য তিনটি বিষয় খুবেই গুরুত্বপূর্ণ

  • কিওয়ার্ড রিসার্স
  • কন্টেন্ট তৈরি
  • লিংক বিল্ডিং

প্রথম দিকে আপনি কিছু ফ্রি ডিজিটাল মার্কেটিং টুল ব্যবহার করতে পারেন। আপনি যেহেতু নতুন সুতরাং প্রিমিয়াম টুল ক্রয় করাটা আপনার জন্য সহজ হবে না। সুতরাং প্রথমে ফ্রি টুল গুলো ব্যবহার করতে পারেন বিষয় গুলো সম্পর্কে পরিচয় হওয়ার জন্য।

আপনি গুগল সার্চ কাউন্সিল থেকে অনেক কিছু শিখতে পারবেন। যা অন্য কারো কাছ থেকে শেখা সম্ভব হবে না। প্রথম থেকে আপনার ওয়েবসাইট থেকে ইমেইল কালেক্ট করা শুরু করুন। convertkit মাধ্যমে ১০০০ ফ্রি সাবসক্রাইবার ব্যবহার করতে পারবেন।

ফেব্রুয়ারী 16, 2021
Roy
ডিজিটাল মার্কেটিং বর্তমান সময়ের সব থেকে দ্রুত বৃদ্ধি পাওয়া প্লাটফর্ম। প্রতিনিয়ত চাকরি বাজারে বিজ্ঞাপন এবং মার্কেটিং সেক্টরে এর চাহিকদা…
ফেব্রুয়ারী 16, 2021
জানুয়ারী 31, 2021
Roy
ডিজিটাল মার্কেটিং, বর্তমানে মার্কেটিং জগতের ভিন্ন একটি মাধ্যম। ইন্টারনেট বা মিডিয়া ব্যবহার করে কোন পণ্য বা সেবার প্রচারনা করাকে…
জানুয়ারী 31, 2021

ইন্টাশিপ বা জব ডিজিটাল মার্কেটিং এজেন্সি

আপনি যে কাজ শিখেছেন তার প্রাকটিক্যাল ভাবে করার জন্য জব অথবা ইন্টাশিপের কোন বিকল্প নেই। তাই আপনি কোন এজেন্সির সাথে কন্ট্রাকে কাজ করতে পারেন। যা আপনাকে সহযোগিতা করবে নিজের ব্যবসার পরিধি বৃদ্ধি করার লক্ষে।

অনেক ডিজিটাল মার্কেটিং এজেন্সি আছে যারা নতুনদের জন্য জায়গা সৃস্টি করে থাকে। আপনি চাইলে বাসায় বসে বিভিন্ন মার্কেটিং এজেন্সির সাথে কাজ করতে পারেন বাসা থেকে। এতে করে আপনার অভিজ্ঞতা বৃদ্ধি পাবে এবং কাজ করার ইচ্ছা শক্তি বাড়বে।

দেশি এবং বিদেশী অনেক ক্লাইয়েন্টের সাথে কাজ করার অভিজ্ঞতা হবে। এবং আপনি বুঝতে পারবেন একটি ডিজিটাল মার্কেটিং এজেন্সি কিভাবে প্রতিষ্টিত হয়।

অনেক ওয়েবসাইট ওনার আছে যারা চায় তাদের ওয়েবসাইটি রান করুক। এই জন্য ওয়ার্কার খুঁজে থাকে। যারা তাদের ওয়েবসাইটের জন্য অল্প কিছু পেমেন্টে কাজ করবে।

এছার এজেন্সির সাথে কাজ করলে বিভিন্ন মাধ্যমে কাজ করতে পারবেন যা আপনার ডিজিটাল মার্কেটিং ক্যারিয়ার গ্রো করবে।

একটা এজেন্সির সাথে অনেক দিন কাজ করলে বিভিন্ন পজিশনে কাজ করার অভিজ্ঞতা হবে। এবং আপনি সামনে অনেক ভালো ভালো এজেন্সির সাথে কাজ করতে পারবেন।

ডিজিটাল মার্কেটিং কি?

ফ্রিল্যান্সিং এবং ডিজিটাল মার্কেটিং ক্যারিয়ার

এজেন্সির সাথে কাজ করলে যেমন বিভিন্ন বিষয়ের উপর অভিজ্ঞতা হবে তেমনি ফ্রিল্যান্সিং করলে ক্লাইন্টের সাথে সম্পর্ক উন্ননায়ের একটি সুযোগ সৃষ্টি হবে। যা পরর্বতীতে আপনাকে কাজ পেতে সহযোগিতা করবে।

ধরলাম আপনি ২ বা ৩ বছর ফ্রিল্যান্সিং করলে এর ফলে অনেক গুলো ক্লাইন্টের সাথে যোগাযোগ তৈরি হবে। যা পরর্বতীতে অনলাইনে কাজ পাওয়ার জন্য ভালো জায়গার সৃষ্টি হবে।

এবং প্রায় সকল ছোট ডিজিটাল মার্কেটিং এজেন্সি গুলো ফ্রিল্যান্সিং মার্কেট প্লেসে প্রথম দিকে কাজ শুরু করে। পরর্বতীতে ক্লাইন্ট গুলোকে তাদের এজেন্সিতে কনভার্ট করে থাকে। এবং দিন দিন তার পরিমান বৃদ্ধি পাওয়ার সাথে সাথে এজেন্সিং পরিধি বৃদ্ধি পায়।

নিজের এজেন্সি তৈরি করুন

  • টিম হায়ার করুন।
  • কাজের কৌশল তৈরি করে কাজ করার চেষ্টা করুন।
  • একজন মার্কেটিং কনসালটেন্ট হয়ে কাজ করুন। মার্কেটিং কনসালটেন্ট ঘন্টা ধরা পেমেন্ট পেয়ে থাকে। যা অন্য কোন পেশার থেকে ভালো আয় করা সম্ভব।

শেষ কথা

ডিজিটাল মার্কেটিং একটি অনেক বড় পেশা বতমান সময়ে সুতরাং আপনি অতিরিক্ত গুরুত্ব সহকারে কাজ করলে ভবিষ্যৎ ভালো কিছু করতে পারবেন।

সুতরাং যা কিছু শুরু করুন তা যেন সঠিক নিয়ম মেনে হয়ে থাকে। আজকে শুরু করলে কালকে থেকে শেষ করে দিবেন এমনটা যেন না হয়।

যাই করুন মনোযোগ সহকারে সঠিক পরিকল্পনা নিয়ে করুন একটা সময় সফল হবেন। যে কোন কাজ পরিপূরর্ণ ভাবে শিখতে পারলে ক্যারিয়ার দাঁড় করানো সম্ভব।

ফ্রি ডিজিটাল মার্কেটিং কোর্স

Digital Marketing Career

Subject of MarketingAverage Salary
SEO2 or 3 lakhs
Content Marketer2 or 4 lakhs
CPC2.5 or 6 lakhs
Digital Marketing Manager4 or 18 lakhs
Social Media Manager3 or 4 lakhs
Content Writer2.5 or 5 lakhs

ডান থেকে বামে টানুন আরও পোষ্ট দেখার জন্য

error: Content is protected !!