ফ্রি ফ্রিল্যান্সিং কোর্স VS পেইড ফ্রিল্যান্সিং কোর্স

আজকে এমন একটি বিষয় নিয়ে কথা বলা শুরু করলাম যে বিষয়টি নিয়ে আমি অনেক আগে থেকেই কথা বলতে চাই। যা হোক অনেক লেট হলেও আজ কথা বলা শুরু করেছি।

আমি আমার ক্যারিয়ারের শুরুতে যখন ফ্রিল্যান্সিং শুরু করি তখন কোন কোর্স করে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করি নাই। এর মানে অবশ্য এই নয় যে আপনাকে ফ্রিল্যান্সিং কোর্স করতে হবে না।

এতো সব কথা বাদ দিয়ে আসল কথা নিয়ে আলোচনা করা যাক। অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং কোর্স কি এই বিষয়টি নিয়ে কথা বলা দরকার। অনলাইন ফ্রিল্যান্সিং কোর্স হল টাকা নিয়ে ভিডিও ক্রয় করা। এই ভিডিও আপনি দেখবেন এবং বুঝবেন যে বিষয়টি আপনি বুঝতে চান। একটু ক্লিয়ার করা যাক।

ধরুন, আপনি ২০০০ টাকা দিয়ে একটি গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখার কোর্স ক্রয় করলেন। এবার আপনাকে কত গুলো ভিডিও দেওয়া হবে যে ভিডিও গুলো দেখে আপনাকে গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখতে হবে। এবং আপনার বোঝার কোন সমস্যা হলে আপনাকে সহযোগিতা করা হবে।

ফ্রি এবং পেইড ডিজিটাল মার্কেটিং অনলাইন কোর্স

নোট: দেখুন যারা ভিডিও বিক্রয় করে তারা মূলত ভিডিও করার সময় খুব ভালো করে প্রতিটি বিষয় বোঝানোর চেষ্টা করে। এর পরেও আপনার বোঝার সমস্যা হলে সেই বিষয় তারা সমাধান দিয়ে থাকে। তবে হ্যাঁ সমাধানের জন্য আপনি কত টুকু সহযোগিতা পাবেন তা বলে বুঝানো সম্ভব নয়।

এখন প্রশ্ন হল আমি কি অনলাইন থেকে ফ্রিল্যান্সিং কোর্স ক্রয় করব?

দেখুন এই প্রশ্নটির আমার কাছে দুইটি উত্তর আছে এক আপনি অনলাইন থেকে কোর্স ক্রয় করুন যদি পূর্বে আপনার সেই বিষয় ৪০% বা তার বেশি ধারনা থাকে।

যদি আপনি একবারে নতুন হয়ে থাকে তাহলে আমি বলব অনলাইন থেকে কোর্স ক্রয় করার দরকার নেই। কারন আপনি নতুন মানুষ প্রথম অবস্থায় কোর্স গুলো কোন কিছু ঠিক ভাবে বুঝতে পারবেন না।

আপনি যেহেতু নতুন সুতরাং চেষ্টা করুন ইউটিউব, ফেসবুক, গুগল সার্চ করে বিষয় টা সম্পর্কে একটি ধারনা নেওয়ার এবং নিজে থেকে কিছু কাজ প্রোকটিস করুন।

যখন দেখবেন যে আপনি অনেক কিছু বিষয় নিজ থেকে বুঝতে পারছেন তখন আপনি কোর্স ক্রয় করার কথা চিন্তা করতে পারেন।
আমি একজন ডিজিটাল মার্কেটার।

আমি প্রথম ডিজিটাল মার্কেটিং শিখছিলাম ফেসবুক, ব্লগ, ইউটিউব ইত্যাদি মাধ্যম ব্যবহার করে। এবং আমি এখনো মনে করি কোন কোর্স করে কোন ধরনের লাভ হবে না যদি আপনি নিজ থেকে শেখার আগ্রহ সৃষ্টি না করেন।

এখানে আরও একটি প্রশ্ন আসতে পারে। সেটা হল আমি কত টাকার কোর্স ক্রয় করব? মানে অনেক দামি কোর্স
ক্রয় করব কি! এই প্রশ্নটির উত্তরে বলব আপনি যত টা কম টাকা দিয়ে কোর্স ক্রয় করা যায় তত ভালো।

ফ্রি গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখুন এবং ফ্রিল্যান্সিং করে আয় করুন

অনেক দাম দিয়ে কোর্স ক্রয় করার দরকার নেই। এখানে অবশ্য আমার একটি ব্যক্তিগত মতামত আছে। আমি মনে করি আপনি যত বেশি মানুষের কাছ থেকে শিখতে পারবেন তত বেশি ভালো ভাবে জানতে পারবেন।

কারন, প্রতিটি ব্যক্তির কিছু নিদিষ্ট স্টাইল আছে যা সবার থেকে ভিন্ন। সুতরাং যত বেশি মানুষের কাছ থেকে শিখবেন তত বেশি স্টাইল আপনি শিখতে পারবেন।

এই কারনে আমার সাজেশন হল ১০,০০০ টাকা দিয়ে একটি কোর্স ক্রয় না করে। ৫ টি একই কোর্স ভিন্ন ভিন্ন স্থান থেকে ক্রয় করে শেখা ভালো।

আমার কাছে টাকা নেই আমি কি ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারব?

আমি ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার পর এমন অনেক সমস্যার মুখোমুখি হয়েছি যা কোর্স আমাকে শিখাতে পারেনি। আমি সেই সকল সমস্যার সমাধান গুগল,ইউটিউব থেকে পেয়েছি।

দেখুন ফ্রিল্যান্সিং শেখা এবং মার্কেটপ্লেসে কাজ করা দুইটি সম্পূর্ণ ভিন্ন বিষয়। আপনার যদি ইচ্ছা শক্তি থাকে তাহলে ইউটিউব থেকে সম্পূর্ন ফ্রিল্যান্সিং শেখা সম্ভব।

আমি ফ্রি ফ্রিল্যান্সিং শিখেছি এবং আয় করছি। আমার কোন গুরু বা মেনটর নেই। এই সব গুরু বা মেনটর দিয়ে কোন কিছু হবে না যদি আপনি নিজ থেকে কোন কিছু করতে না চান।

ফ্রি এবং পেইড ডিজিটাল মার্কেটিং অনলাইন কোর্স

আসল বিষয়টি হল আপনার ইচ্ছা শক্তির উপর নির্ভর করবে আপনি ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারবেন কি না। আমার কাছে মনে হয় যারা বিভিন্ন সোর্স ব্যবহার করে ফ্রিল্যান্সিং শিখে থাকে তারা বেশি জানতে পারে।

আপনি যদি ইংরেজী বুঝে থাকেন তাহলে আমি আপনাকে Udemy থেকে কোর্স ক্রয় করতে পারেন।

কি ভাবে ফ্রি ফ্রিল্যান্সিং শিখবেন?

আপনি যে বিষয়টি শিখতে চান সেই বিষয়টি প্রথমে সিলেক্ট করুন। ধরুন আপনি ফেসবুক মার্কেটিং শিখতে চান। এবার গুগলে সার্চ করুন ফেসবুক মার্কেটিং নিয়ে। এবার প্রতিটি ওয়েবসাইট ভিজিট করুন।

যে সকল ওয়েবসাইটে তথ্য আপনার ভালো লাগবে সেই সকল ওয়েবসাইটের একটি লিষ্ট করুন। একই ভাবে ফেসবুক, ইউটিউব প্রতিটি মাধ্যমের সেরা সোর্স গুলো খুঁজে বের করুন।

এবার আপনার সংগ্রহ করা সোর্স গুলো থেকে শেখা শুরু করুন। আপনি শেখার সাথে সাথে প্রাকটিস করে নিবেন। এবং একটি নোট রাখবেন প্রতিটি বিষয় কিভাবে সংঘটিত হচ্ছে।

free freelancing

আপনি বুঝতে পারবেন আপনি কতটা শিখেছেন। শেখার একটি পর্যায়ে নিজ থেকে কোন পণ্য বা সেবার প্রচারনা শুরু করে দিতে পারেন। এবং সেই ক্যামপেইন থেকে কতটা সফলতা আপনি পাচ্ছেন সেটার উপর নির্ভর করে নিজেকে আপডেট করতে থাকুন। দেখবেন অন্য দশজন ফেসবুক মার্কেটিং ফ্রিল্যান্সারের থেকে আপনি ভালো করতে পারছেন।

নোটঃ আমি এই লেখার মাধ্যমে পেইড কোর্স বিক্রয় করে এমন কোন প্রতিষ্টানকে প্রোমোট করছি না। আপনি আপনার পছন্দ মত যে কোন কোম্পানির কাছ থেকে পেইড কোর্স ক্রয় করতে পারেন।

বিস্তারিত আরও পড়ুর