সহজ ফ্রিল্যান্সিং কি কি কাজ করা যায়

ফ্রিল্যান্সিং কি কি কাজ করা হয়

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেট প্লেসে কোন কঠিন কাজ আছে বলে আমার মনে হয় না। কিছু কিছু কাজ আছে যা করতে হলে সাধারনত কম্পিউটার জ্ঞান থাকলেই করা যায়। তবে আপনি যে কাজেই করেন না কেন তার জন্য অভিজ্ঞতা থাকাটা জরুরি।

সঠিক অভিজ্ঞতা ছারা আপনি কোন কাজ ভালো ভাবে করতে পারবেন না। তাই আমার ব্যক্তিগত পরামর্শ হল কাজ করার আগে কাজ শিখে নেওয়া উচিত।

যেহেতু খুবেই সাধারন কাজ সেহেতু কোন কোর্স না করলেও চলবে। আপনি ইউটিউবে টিউটোরিয়াল দেখে কাজ গুলো ‍শিখে নিতে পারবেন ‍এবং করতে পারবেন।

আজকে আমি যে সকল কাজের কথা বলব তা শুধু ফ্রিল্যান্সিং মার্কেট প্লেসে পাওয়া যাবে, অন্য কোন মাধ্যমে পাওয়া যাবে না। আশা করছি লেখাটি আপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার শুরু করার জন্য সহযোগিতা করবে।

আমি সে সকল কাজ নিয়ে আলোচনা করব যার চাহিদা বেশি কিন্তু ফ্রিল্যান্সার কম।
তাহলে চলুন শুরু করা যাক।

বুক রাইটার

আপনি ভালো গান, কবিতা, গল্প, ইত্যাদ লিখতে পারলে এই সেক্টরটি আপনার জন্য সম্ভবনার দরজা খুলে দিবে। বর্তমান মার্কেট প্লেসে সব থেকে চাহিদার কাজ বুক রাইটিং।

আপনাকে প্রথমে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেট গুলোতে একাউন্ট তৈরি করতে হবে। একাউন্ট তৈরি করা শেষ হলে ভালো ভাবে প্রোফাইল তৈরি করতে হবে । আপনার প্রোফাইল যেন দেখতে সুন্দর হয় সেই দিকে খেয়াল রাখতে হবে ।

book writing work

আপনাকে বায়ার ট্রপিক প্রদান করবেন। সেই ট্রপিক অনুযায়ি আপনাকে গল্প লিখতে হবে। যেমন আমি একজন বায়ায় হয়ে আপনাকে কন্ট্রাক করলাম। এবং আমি আপনাকে রোমান্টিক ছোট গল্প লেখার প্রস্তাব দিলাম।

আপনি আপনার ছন্দ মিশিয়ে একটি রোমান্টিক গল্প লিখে দিলেন। আপনার গল্প কতটা ভালো হবে তার উপর নির্ভর করে বায়ার আপনার কাজের রিভিউ দিবে। আপনি ভালো গল্প লিখলে ভালো রিভিউ পাবেন। যা পরর্বতীতে আর ও কাজ পেতে সহযোগিতা করবে।

সাধারনত ফ্রিল্যান্সিং মার্কেট গুলোতে গোষ্ট স্টোরি রাইটারদের চাহিদা বেশি। আপনি ভালো ভুতের গল্প লিখতে পারলে, এই সেক্টরে আপনি ভবিষৎ গড়তে পারবেন।

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেট প্লেসে যে সকল কাজ পাবেন তা সাধারণত ইংরেজি বুক রাইটিং এর কাজ । আপনার অবশ্যই ইংরেজি জানা থাকতে হবে বায়ারের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করার জন্য। তাছাড়া আপনি বাংলায় গল্প লিখে ইংরেজিতে ট্রান্সলেট করতে পারবেন।

বিশ্বাস যোগ্য সার্ভে করে আয় করার ওয়েব সাইট

পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন ফ্রিল্যান্সিং জব

পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন ডিজাইন করা খুব কঠিন একটা কাজ নয়। আপনি অতিরিক্ত ১ সপ্তাহ ভালো ভাবে সময় দিতে পারলে কাজটি শিখ নিতে পারবেন। অনলাইন মার্কেট প্লেসে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন এর ভাল কাজ পাওয়া যায়।

Powerpoint freelancing work

বিভিন্ন ধরনে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন এর কাজ পাওয়া যায়। যেমন, ডাটা এনালাইটিক, এক্সেল প্রেজেন্টেশন, কোম্পানি প্রোফাইল ডিজাইন, সেল প্রেজেন্টেশন, করপোরের্ট প্রেজেন্টেশন, ওয়েবসাইট পরিচয় প্রেজেন্টেশন, থিম প্রেজেন্টেশন, ইত্যাদি।

প্রেজেন্টেশন কাজ গুলো শুধু যে মাইক্রো সফট পাওয়ার পয়েন্টে দিয়ে করা হয় তা কিন্তু নয়। কিছু কিছু প্রেজেন্টেশন Adobe Premiere Pro দিয়ে করা হয়।

এখন আসল বিষয় হল কাজ গুলো শিখে নিতে হবে। ইউটিউব ভিডিও দেখে কাজ গুলো শিখে নিতে পারবেন।

প্রেজেন্টেশনের প্রকার ভেদে প্রতি কাজের ফ্রিল্যান্সার হায়ার কার হয়। প্রতিটি কাজের জন্য মিনিমাম বিড ১০ ডলার থেকে শুরু হয়। প্রজেক্ট প্রতি বিড ২০ ফ্রিল্যান্সার।

যেখান অন্য কাজের জন্য গড়ে ১০০ উপরের বিড করা হয় সেখানে ২০ বিড। সুতরাং এক্ষেত্রে কাজ পাওয়াটা অনেক বেশি কঠিন কিছু না পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন ওয়ার্কার হিসেবে।

ভিডিও এডিটিং ফ্রিল্যান্সিং কাজ

ফাইল কনভার্ট ফ্রিল্যান্সিং কাজ

আমি আপনাকে মাইক্রো সফট ওয়ার্ডের ফাইল দিলাম। এখন এই ওয়ার্ড ফাইলে পিডিএফ অথবা অন্য কোন ফরমেটে কনভার্ট করতে হবে।

freelancing file convert work

Covert Work Format

Word to Pdf
Pdf to Word
Pdf to Excel
Excel to Pdf
PNG to JPG
PNG to PSD
Website To PDF
PDF TO IMAGE
PDF TO CSV
PDF TO PPT
PDF TO XLSX

উপরের কাজ গুলো করার জন্য ওয়ার্কার অনেক কিন্তু কাজ কম। কাজ গুলো শেখার জন্য শুধু আপনাকে ইন্টারনেট ব্রাউজ করা জানতে হবে। কারন অনেক এমন ওয়েবসাইট আছে যেখান থেকে কানভার্টের কাজ গুলো ফ্রি করতে পারবেন।

PDF TO WORD থেকে সকল ধরনের কনভার্ট কাজ করতে পারবেন।

কনভার্টের যে কাজ গুলো অল্প সংখ্যাক ফ্রিল্যান্সার করে থাকে। Article to video, website to android app, psd to html responsive, psd to wordpress.

যে কোন পিডিএফ ফাইলকে Amazon kindle convert epub mobi pdf কনভার্ট করার কাজটি বেশি পাওয়া যায়।

গ্রাফিক্স ডিজাইন ফ্রিল্যান্সিং কাজ বিষয় বিস্তারিত

কাস্টমার সাপোর্ট

বিশেষ করে নতুন ই-কমার্স, ডিজিটাল মার্কেটিং, সফটওয়্যার ইত্যাদি কোম্পানির ওনার গন কাস্টমার ম্যানেজার হায়ার করে থাকে।

কাস্টমার ম্যানেজার ফ্রিল্যান্সিং কাজের সমস্যা হল সর্বদা অনলাইনে থাকতে হয়। আপনি চাইলে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে এই কাজটি করতে পারবেন। সাধারনত কাস্টমার ম্যানেজার কাজের জন্য ঘন্টা ধরা পেমেন্ট করা হয়।

customer support work

আপনি যে কোম্পানির হয়ে কাস্টমার ম্যানেজার হয়ে কাজ করবেন তার সম্পর্কে বিস্তারিত ধারনা থাকতে হবে। কারন কাস্টমার আপনাকে যখন কোন প্রশ্ন করবে তখন আপনাকে তার সঠিক উত্তর দিতে হবে।

ভালো হয় আপনি যদি নিদিষ্ট কোন পণ্যের জন্য কাস্টমার ম্যানেজার হতে পারেন। কারন সমস্ত বিষয়ে ধারনা থাকা সম্ভব নয়। বায়ার আপনাকে কাজ দেওয়ার সময় প্রশ্ন করবে আপনি তাদের পণ্য বা সেবা সম্পর্কে কতটা জানেন।

একটা উদাহরন দেওয়া যাকঃ

ধরালম আপনি ডিজিটাল মাকের্টিং বিষয়ে বিস্তারিত জানেন। সুতরাং আপনি সেই সকল প্রজেক্টে বিড করুন যাদের ডিজিটাল মাকের্টিং কাস্টমার ম্যানেজার লাগবে। এই ক্ষেত্রে আপনার কাজ পাওয়ার সম্ভবনা বেড়ে যাবে।

আপনি Udemy থেকে কাস্টমার ম্যানেজারের উপর কোর্স করতে পারেন।

ওয়েব সার্চ ফ্রিল্যান্সিং কাজ

সাধারনত ইমেইল মার্কেটিং কাজের জন্য ওয়েব সার্চ ফ্রিল্যান্সার হায়ার করা হয়। তবে এই কাজের জন্য কিছু বেসিক নলেজ থাকতে হবে। যেমন কিভাবে ইমেইল সংগ্রহ করবেন, সংগ্রহ কৃত ইমেইল সঠিক কি না সেটা চেক করবেন।

নিদিষ্ট সংখ্যক ইমেইল সংগ্রহ করার জন্য পেমেন্ট কার হয়ে থাকে। আপনাকে বাংলাদেশের ই-কমার্স ওয়েবসাইট গুলোর ইমেইল অ্যাড্রেস সংগ্রহ করার কাজ দেওয়া হল। ১০০ ওয়েবসাইটের ইমেইল সংগ্রহ করার জন্য ১০ থেকে ২০ ডলার পর্যন্ত পেমেন্ট করা হয়ে থাকে।

web search work

সর্বদা যে আপনার কাছে ইমেইল অ্যাড্রেস চাওয়া হবে তা কিন্তু নয়। মাঝে মাঝে কন্ট্রাক ইনফরমেশন চাইতে পারে।

Type of Web Research Work

Collect Website Information From Excel
Compile a Database of Contacts
Forex Research Project
List of Podcast RSS Feeds
Research Project
Collect a database of Names and Emails
B2B Lead Generation
Find Journalist Email Addresses
Find Micro Jobs Freelancer

উপরের কিছু কাজ উল্লখ করলাম। অবশ্য এর থেকে অন্য ধরনের আরও আনেক ডাটা রিসার্স এর কাজ আছে।

ডাটা এন্ট্রি কাজ বিষয়ক বিস্তারিত আলোচনা

এড পোষ্টিং ফ্রিল্যান্সিং জব

আপনাকে কিছু বিজ্ঞাপন দেওয়া হবে। যা আপনাকে বিভিন্ন ফেসবুক পেজ এবং গ্রুপ শেয়ার করতে হবে। ফেসবুক বিজ্ঞাপন পোষ্টিং খুব কঠিন কাজ নয়। যে কেউ এই কাজ করে আয় করতে পারবে।

তবে আপনার অভিজ্ঞতা থাকলে ভালো হয়। কারন বায়ার আপনাকে কিছু বেসিক প্রশ্ন করতে পারে। যা সঠিক উত্তর জানা থাকাটা জরুরি।

ad posting work

যেমনঃ কিভাবে পোষ্ট শেয়ার করতে হয়? কত গুলো গ্রুপে শেয়ার করতে পারবেন? পোষ্ট শেয়ার করার সময় কি লিখবেন, ইত্যাদি।

এড পোষ্টিং কাজের জন্য ১০ থেকে ২০ ডলার পর্যন্ত আয় করা সম্ভব। অনেক সময় বায়ার নিদিষ্ট সময় পর্যন্ত আপনাকে হায়ার করতে পারে।

ইংরেজি টু বাংলা ট্রান্সলেট এর জব

বর্তমানে ইংরেজি টু বাংলা ট্রান্সলেট কাজ পাওয়া যায়। শুধু ইংরেজি টু বাংলা ট্রান্সলেট কাজ নয় আরও অনেক ধরনের ট্রান্সলেট কাজ পাওয়া যায়।

Online translate work

আপনার ট্রান্সলেট কাজ জানা থাকলে প্রতি মাসে ভালো অর্থ আয় করা সম্ভব। সাধারন ট্রান্সলেটরদের ঘন্টা প্রতি হায়ার করে থাকে।

যদি অনলাইন মার্কেট প্লেসে খুব বেশি একটা কাজ পাওয়া যায় না। কিন্তু আস্তে আস্তে এই কাজের চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

অনেক সময় অনেক দিনের জন্য ফ্রিল্যান্সার হায়ার করা হয়ে থাকে। আপনি এই কাজটি খুব সহজে করতে পারবেন।

বিস্তারিত আরও পড়ুর

error: Content is protected !!