সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার কাজের প্রস্তুতি এ টু জেড

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার কাজের প্রস্তুতি এ টু জেড

সবার ক্ষেত্রে নয়, কিন্তু কিছু কিছু মানুষের জন্য সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার রাখাটা জরুরি। জরুরি বললে ভুল হবে, বলতে পারেন অবশ্যক। আপনি একবারে নতুন হলে অনেক প্রশ্ন আপনার মনে আসছে এবং আসাটাই স্বাভাবিক।

সময় উপযোগি কাজের সাথে তাল মিলাতে গেলে, অবশ্যই নতুন কিছু শিখতে হবে। নতুন কিছু শিখতে না পারলে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে পারবেন না।

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হতে আপনি দুই ভাবে কাজ করতে পারবেন

১. কোন এজেন্সির কর্মীঃ দেশে বা বিদেশের অনেক এজেন্সি আছে যারা আপনাকে হ্যায়ার করবে সোস্যাল মিডিয়া কাজ করার জন্য। এজেন্সির কর্মী হয়ে কাজ করতে চাইলে আপনাকে একটি প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে যেতে হবে যেমন পরীক্ষা দেওয়া এবং সাক্ষাৎকার নেওয়া ইত্যাদি। কারনি এজেন্সি কাজ দেওয়ার আগে ভালো ভাবে আপনার অভিজ্ঞতা যাচাই করে নিবে।

২. নিজের এজেন্সি অথবা পোর্টফলিও তৈরি করার মাধ্যমেঃ আপনি চাইলে নিজেই একটি এজেন্সি তৈরি করতে পারেন। যার মাধ্যমে আপনি অন্যের সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট ম্যানেজ করবেন। এ ক্ষেত্রে প্রধান সমস্যা হল নতুন এজেন্সি হওয়ার কারনে কাজ পাওয়ার সমস্যা। আপনার এজেন্সি যে একবারে কাজ পাবে না এমনটা কিন্তু একবারে নয়। আপনি কিছু কৌশল অবলম্বন করলে অবশ্যই কাজ পাবেন।

ট্রান্সলেট কাজ করে অনলাইন থেকে টাকা আয়ের উপায়

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার কাজের চাহিদা

আপনি একবার গুগল এ গিয়ে সার্চ করে দেখুন “Social Media Manager Jobs” দেখবেন হাজার হাজার লোক এর চাহিদা। কিন্তু আপনার যোগ্যতা না থাকলে এই জব পাবেন কি ভাবে।

আপনি যদি মনে করেন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হওয়ার সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট ব্যবহার করা জানলেই হবে। কিন্তু আপনাকে জানিয়ে রাখি বিষয়টা কিন্তু একবারে তা নয়।

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার কাজের মধ্যে যে সব কাজ যুক্ত তার একটা লিষ্ট দিচ্ছি

  • Brand Performance marketing
  • Google Ads Advertising
  • Facebook Ads Advertising
  • Google Analytics
  • Google Tag Manager
  • SEO
  • Graphic
  • Social Media Content Posting
  • Schedule Posting Knowladge
  • Security issues
  • Content Marketing
  • Content Creation


Popular Social media platform experience

  • Linkedin
  • Facebook
  • Twitter
  • Instagram
  • Pinterest
  • Youtube

উপরে উল্লেখ করা সমস্ত কাজ যে আপনাকে করতে হবে তা কিন্তু নয়। উল্লেখ করা কাজ গুলোর মধ্যে ৫ হতে ৬ টি কাজ ভালো ভাবে জানা থাকলেই হবে।

উপরের কাজ গুলো জানা থাকলে আপনি অনলাইন এবং অফলাইন দুই ভাবে কাজ করে আয় করতে পারবেন।

ফেসবুক থেকে আয় করার বিস্তারিত আলোচনা

উপরে উল্লেখ্য করা কাজ গুলো আপনি কি ভাবে শিখবেন

উপরে উল্লেখ করা কাজ গুলো আপনি দুই ভাগে শিখতে পারেন। এক কোন এজিন্সির সাথে ইন্টার্নশিপ প্রোগ্রামে অংশ গ্রহণ করে দুই অনলাইন কোর্স করে। আমার ব্যাক্তিগত মতামত হল ইন্টর্নশিপ করাটাই ভালো।

হ্যা অনলাইন কোর্স ক্রয় করে আপনি শিক্ষা নিতে পারেন। এবং সেই ধরনের অনলাইন কোর্স ক্রয় করা ভালো যা করার পর আপনি একটা সার্টিফিকেট পাবেন।

গুগল এড বিষয় বিস্তারিত জানার জন্য Google Digital Garage একটি ভালো মাধ্যম। Google Garage একটি গুগল এর প্রতিষ্টান। আপনি এই ওয়েবসাইটে ২০টির বেশি কোর্স ফ্রি করতে পারবেন।

এবং কোর্স শেষে পরীক্ষার দেওয়ার ব্যবস্থা আছে। পরীক্ষায় প্রাপ্ত মার্ক এর উপর নির্ভর করে আপনাকে সার্টিফিকেট দেওয়া হবে।

Google Garage কোর্স এ অংশ গ্রহন করার জন্য আপনাকে কোন ধরনের ফি প্রদান করতে হবে না। শুধু একটি গুগল একাউন্ট থাকলে আপনি গুগল Garage কোর্স করতে পারবেন।

অনলাইন মাইক্রোওয়ার্ক করে টাকা আয়ের উপায়

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার গুরুত্ব

একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার একটি কোম্পানির এসেট। সে ভালো করে জানে কি ভাবে এড এর মাধ্যমে কাস্টমার কনভেন্স করতে হয়।

সোশ্যাল ম্যানেজার কোম্পানির লাভের একমাত্র ভরসা। যদি কোম্পানি অনলাইন রিলেটেড হয় তবে কথাই নেই।

একজন ভালো সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার খুব সহজে কোম্পানির ROI সম্পূর্ণ করতে সহযোগিতা করে।

আপনি একটি কোম্পানির সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার মানে, আপনি কোম্পনির সম্পত্তি।

কোর্স করা শেষ হয়ে গেলে যে কাজ গুলো করা প্রয়োজনঃ

সব থেকে ভালো হয় সরাসরি কোন কাজ করতে পারলে, মানে লাইফ প্রজেক্টে। যদি লাইফ প্রজেক্টে কাজ করতে না পারেন। তবে অনলাইনে এমন অনেক প্লাটফর্ম আছে যেখান আপনি ফ্রি অনুশিলন করতে পারবেন।

অথবা আপনি নিজেই একটি প্রজেক্ট তৈরি করে তা উপর গবেষনা করতে পারেন। হ্যা তাতে আপনার কিছু টাকা খরচ হবে কিন্ত ‍অভিজ্ঞতা হবে অনেক।

ছাত্র অবস্থায় অনলাইন থেকে টাকা আয়ের উপায়

কি ভাবে নিজের প্রজেক্ট তৈরি করবেন তার উপর একটি উদাহরন দেওয়া যাক

ধরুন আপনি ফেসবুক মার্কেটিং করে একটি পণ্য বিক্রয় করবেন এমন একটি প্রজেক্ট তৈরি করবেন।

প্রথমে প্রজেক্টে একটি নাম দিতে হবে, আপনার ইচ্ছা মত একটা নাম দিতে পারেন। এবার যে পণ্য টি ফেসবুক মার্কেটিং করে বিক্রয় করতে চাচ্ছেন তার উপর একটি কৌশন তৈরি করুন।

যেমন

  • কি ভাবে এড টি প্রকাশ করবেন?
  • কোন ধরনের এড আপনার পণ্যের জন্য ভালো হবে?
  • আপনি কত টাকা এই এডের জন্য খরচ করবেন?
  • কি পরিমান লাভ করবেন?
  • পণ্য ডেলিভারে দিবেন কি ভাবে?
  • গ্রহবের সমস্যার সমাধান দিবেন কি ভাবে?
  • পেমেন্ট গ্রহন করবেন কি ভাবে?
  • আপনার এড দেওয়ার লক্ষ কী? শুধু পণ্য বিক্রয় করা, না কোম্পানির ব্রান্ডিং করা।

Udemy সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার কাজ শেখার জন্য বিভিন্ন কোর্স বিক্রয় করে। আপনি যে কোন একটি বা দুইটি কোর্স করে প্রাকটিস শুরু করতে পারেন। আপনার কাছে ডলার না থাকলে কোর্স ক্রয় করার জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার

Find Your Social Media Manager Jobs

বিস্তারিত আরও পড়ুর